| |

Ad

ধর্মপাশায় প্রতিবন্ধী শিশুকে জোর পূর্বক ধর্ষণ

আপডেটঃ ৭:১৪ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২৬, ২০১৯

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় ৮ বছর বয়সের বাক্-প্রতিবন্ধী এক কন্যাশিশুকে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করেছে বলে রুমালী (১৮) নামে এক যুবকের  বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।  
রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলা সদরের ধর্মপাশা পূর্বপাড়া গ্রামের আইন উদ্দিনের নির্মাণাধীন একটি পরিত্যক্ত ভবনে এ ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।
ধর্ষক রুমালী উপজেলা সদর ইউনিয়নের ধর্মপাশা পূর্বপাড়া গ্রামের খোকন চৌধুরীর ছেলে। এ ঘটনায় ওই রাতেই ধর্ষিতা ওই শিশুটির পিতা বাদি হয়ে ধর্ষক রুমালীকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্মপাশা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে ঘটনার পর থেকেই ধর্ষক রুমালী এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা সদরের ধর্মপাশা পূর্বপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও বাজারের চা বিক্রেতার বাক্-প্রতিবন্ধী ওই শিশুকন্যাটি রবিরার সন্ধ্যায় তার বাবার সাথে দোকানে আসে। কিন্তু মেয়েটির বাবা দোকানের কাজ সেড়ে বাড়ি যেতে তার বিলম্ব হবে বিধায় তিনি ওই রাত সাড়ে আটটার দিকে মেয়েটিকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রতিবেশী খোকন চৌধুরীর ছেলে রুমালীর কাছে বুঝিয়ে দেন। কিন্তু লম্পট রুমালী মেয়েটিকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার সময় পথে আইন উদ্দিনের নির্মাণাধীন পরিত্যক্ত একটি ভবনে নিয়ে শিশুটিকে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। পরে মেয়েটির কান্নার শব্দ শুনে আশ পাশের লোকজন টর্চ লাইট জ্বালিয়ে ঘটনাস্থলের দিকে এগিয়ে আসতে দেখে ধর্ষক রুমালী  সেখান থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে পাশের নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।  
ধর্মপাশা সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুজন চন্দ্র সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,  চিকিত্সা ও ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে এবং ধর্ষককে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে।