| |

Ad

কেশবপুরে স্বর্ণ ও নগদ আর্থসহ আটক ২

আপডেটঃ ৭:০৯ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৯, ২০১৯

যশোর প্রতিনিধিঃ আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে আসামীদের চিহ্নিত করে যশোরের কেশবপুর থানা পুলিশ এক দম্পত্তির চুরি যাওয়া স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকা উদ্ধারসহ ২ আসামীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার মো. মোস্তফা চোকদার ও শেখ সোহেল।
কেশবপুর থানা সূত্রে জানা গেছে, কেশবপুর হাসপাতাল এলাকার মৃত কেরামত আলীর ছেলে আনিছুর রহমান স্বপরিবারে চাকুরী করেন। তারা প্রতিদিন সকাল ৯টার আগে বাসা বাড়িতে তালা দিয়ে যার যার কর্মস্থলে চলে যান। গত ২ মে সকালে কর্মস্থলে যাবার পর অজ্ঞাত চোরেরা আনিছুর রহমানের বসত ঘরে অপথে প্রবেশ করে স্টীলের আলমারি, শোকেজ, ওয়াড্রপের তালা ভেঙ্গে ২ লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালঙ্কার, ও নগদ ৪২ হাজর টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। ওই সময় আনিছুর রহমান বাদি হয়ে অজ্ঞাত চোরদের আসামী করে কেশবপুর থানায় একটি চুরি মামলা করেন। এরপর থেকে পুলিশ এ চুরির রহস্য উদঘাটনে সোচ্চার হয়। 
কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহিন বলেন, আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে চোর সনাক্ত করা হয়। গত ৮ আগস্ট অভিযান চালিয়ে মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানা পুলিশের সহযোগিতায় মো. মোস্তফা চোকদারকে আটক করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি মতে রাজৈর থানার টেকেরহাট মিল্কভিটা রোডস্থ নিউ নিয়তি জুয়েলার্সের স্টীলের লোকার থেকে বাদির চুরি যাওয়া ২ আনা ২ রতি ৩ পয়েন্ট ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন, ২ আনা ৩ পয়েন্ট ওজনের একটি স্বর্ণের আংটি, ৪ আনা ৩ রতি ৭ পয়েন্ট ওজনের একজোড়া  স্বর্ণের কানের দুলসহ মোট ৮ আনা ৫ রতি ১৩ পয়েন্ট ওজনের স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়। যার মূল্য ৩০ হাজার টাকা।
এ ব্যাপারে মনিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রাকিব হাসান বলেন, অপরিচিত লোকেরা এলাকায় আস্তানা গড়ে এ ধরনের অপরাধ কর্মকান্ড সংঘটিত করে আসছে। তিনি এদের চিহ্নিত করে মারপিট না করে পুলিশে সোপর্দ করার আহবান জানান।