| |

Ad

বাগমারায় গলাকাটা শিশু নিয়ে চলছে নানা জল্পনা কল্পনা

আপডেটঃ ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৯, ২০১৯

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার সুর্যপাড়া মহল্লায় বাবা-মায়ের সাথে ঘুমানো অবস্থায় গলাকাটা এক শিশুকে নিয়ে এলাকাজুুড়ে চলছে জল্পনা কল্পনা। আহত শিশু ভবানীগঞ্জ পৌরসভার সুর্যপাড়া মহল্লার আতিকুর রহমান মিঠুনের ছেলে মিজানুর রহমান (৫)।
এঘটনায় বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটঁনাস্থল পরিদর্শন করেছে বলে তিনি জানিয়েছে। তবে আহত শিশুটিকে উদ্ধার করে তার মা ও স্থানীয় এলাকাবাসিসহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ৩৩ নং ওর্য়াডে ভর্তি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান জানান, উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার সুর্যপাড়া মহল্লায় বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে শোকেজের কাঁচ খসে পড়ে মিজানুর রহমান মিজান (৫) নামের এক শিশুর গলার পাশে কেটে যায়। রাতেই শিশুটি প্রথমে বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
শিশুটিকে হাসপাতালের ৩৩ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ওসি বলেন, রাতেই তিনি নিজে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ওই ঘরে শোকেজের খসে পড়া কাঁচের টুকরো পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে কোন কারণে শোকেজের কাঁচ খসে পড়ে শিশুটির গায়ের উপর পড়ে। মায়ের সঙ্গে শিশুটি মেঝেতে শুয়ে ছিল। কিন্তু এ ঘটনাটি ছেলে ধরা শিশুর গলা কাটার চেষ্টা চালিয়েছে বলে গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখেছে। শিশুর গলা কাটা বিষয়ে আতংকিত না হওয়ার জন্য এলাকাবাসির  প্রতি আহবান জানান। এবং থানায় কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।